সর্বশেষ

10/recent/ticker-posts

তালিকাভুক্ত হলো বাংলাদেশের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন






শনিবার (১৭ অক্টোবর) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)  সংস্থাটি তাদের ওয়েবসাইটে এ তথ্য প্রকাশ করেছে। এতে দেখা যায় বাংলাদেশের  গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যালস গ্রুপ অব কোম্পানিজ লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের ৩টি ভ্যাকসিন প্রি-ক্লিনিক্যাল টেস্টের জন্য তালিকা ভুক্ত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। 

গ্লোব বায়োটেকও সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে এবং এর সত্যতা তুলে ধরেছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) ১৫ অক্টোবর গ্লোব বায়োটেকের আবিষ্কৃত তিনটি ভ্যাকসিনকে কোভিড-১৯ (করোনা)  ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে।’

গ্লোব বায়োটেকের রিসার্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমেন্টের প্রধান ডা. আসিফ মাহমুদ গত ১২ আগস্ট গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকারে ডিসেম্বরে বাংলাদেশের বাজারে করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে আসার ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন। তার এই আশাবাদ প্রকাশের একমাস পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রি-ক্লিনিক্যাল টেস্টের তালিকাভুক্ত করলো।

প্রি-ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তালিকায় ইউনিভার্সিটি অব ক্যামব্রিজের ভ্যাকসিনসহ ১৫৬টি কোম্পানি রয়েছে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বজুড়ে গবেষকেরা একটি ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে ছুটছেন। এর মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৪০টির বেশি ভ্যাকসিনের ওপর নজর রেখেছে। ভ্যাকসিন তৈরি ও পরীক্ষা করতে সাধারণত বেশ কয়েক বছর সময় লাগে। বেশ কয়েকটি ধাপ পেরিয়ে তবেই ভ্যাকসিন ব্যবহারের উপযোগী হয়। তবে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে গবেষকেরা ১২ থেকে ১৮ মাসের মধ্যেই তা সম্পন্ন করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ ছাড়াও বিশ্বের অনেক উন্নত দেশ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কিছুদিন পর আরো বিস্তারিত জানা যাবে।


আরো অন্যান্য খবর

মানব পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে ব্রুনাইয়ে গ্রেপ্তার হওয়া শেখ আমিনুর রহমান ওরফে হিমু গত সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন। তিনি ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের নির্বাচনে নড়াইল -২ (লোহাগাড়া উপজেলা ও নড়াইল সদরের অংশ) আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন। 

তবে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করার আগে এলাকায় তার খুব বেশি পরিচয় ছিল না। ভোটের প্রায় এক বছর আগে হিমুর ওই এলাকায় ভ্রমণ বেড়ে যায়। তিনি স্থানীয় রাজনীতিতে জড়িত না হলেও নির্বাচনী এলাকায় তাঁর ছবি সহ বর্ণিল পোস্টার এবং ব্যানার ছাপিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন। তবে দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় ভোটের পরে এলাকায় তার কোনও কার্যক্রম হয়নি। গত বুধবার বিকেলে র‌্যাবের অভিযানে ধরা পড়ার পর তাকে নিয়ে আলোচনা আবার শুরু হয়েছে। নির্বাচনের আগে তিনি লোহাগড়ের রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের সাথে নিজেকে একজন বড় 'শিল্পপতি' হিসাবে পরিচয় দিলেও, অনেকে এখন অবাক হয়েছেন যে তাঁর নামটি এখন মানব পাচারের সাথে জড়িত।

বাকি অংশ>>


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ