সর্বশেষ

10/recent/ticker-posts

সেকেন্ড টাইম পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তা করছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়





দেশের টপ বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মধ্য অনেক বিশ্ববিদ্যালয় সেকেন্ড টাইম পরীক্ষা নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৪ সালের পর সেকেন্ড টাইম পরীক্ষা নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। কারন এতে করে নাকি ভালো ছাত্র-ছাত্রী পাওয়া যায় না। 


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো, রাবি, চবি, বুয়েটেও এই সুযোগ নেই। তবে অবশেষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিবর্তন আসবে বলে আশা করা যায়। আজ মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে আয়োজিত একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির প্রথম বর্ষে স্বশরীরে ভর্তি পরীক্ষা নেবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে ভর্তি পরীক্ষা কবে নেয়া হবে সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। রাবি উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় সভাপতিত্ব করেন।
আরো জানা যায় এইবারও আগের মতোই ১০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে, কোনো পরিবর্তন আসবে না। তিনি আরো বলেন আগের মতোই ৬০ নম্বরের MCQ আর ৪০ নম্বরের Written থাকবে, এতে কোনো পরিবর্তন আসবে না।

 এছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের এসএসসি এবং এইচএসসিতে প্রাপ্ত জিপিএর ভিত্তিতে কোনো নাম্বার রাখা হবে কিনা সে বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ফের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কলাভবনের ডীন ও ইসলামের ইতিহাস বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর ফজলুল হক।

তিনি জানান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনলাইনে নেয়া হবে না। শিক্ষার্থীদের স্বশরীরেই অংশগ্রহণ করে ভর্তি পরীক্ষা দিতে হবে। ভর্তি নম্বর বণ্টন বিষয়ে তিনি বলেন, এটা এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের পরে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এবার সেকেন্ড টাইমারদের ভর্তি পরীক্ষায় সুযোগ দেয়ার ব্যাপারেও প্রশাসন ভাবছে বলে জানান তিনি।

এর আগে উপাচার্যদের এক সভায় করোনার কারণে গুচ্ছ পদ্ধতিতে অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়। তবে বুয়েট, ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এতে সম্মত নয়। দেশের এ শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগের নিয়মে সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে মত দেন। আজকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিল।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক মলয় ভৌমিক এ বিষয়ে বলেন, 

‘করোনার কারণে একেবারেই পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ না থাকলে অনলাইনের কথা বিবেচনা করা যেতে পারে। তবে আরো সময় নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়াটা ঝুঁকির, করোনাও ঝুঁকির।’

আরো জানা যায় যে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ পদ্ধতিতে যাবে না, তারা তাদের নিয়ম টাই ধরে রাখতে চায়, 
সূত্রে আরো জানা যায় যে, তারা তাদের প্রচলিত নিয়মেই পরীক্ষা নিয়ে আসছে এবং ভবিষ্যতেও নিবে।  তারা অন্যকে অনুসরণ করবে না এবং গুচ্ছ পদ্ধতিতেও যাবে না,  তারা একক ভাবে তাদের ভর্তি পরীক্ষা নেবে, আর এইবার তারা নতুন চিন্তা ভাবনা করছে সেকেন্ড টাইমারদেরকেও সুযোগ দেওয়ার। 

তবে সবকিছু পরিষ্কার ভাবে বুঝতে পারা যাবে যখন সার্কুলার দিবে তখন। পরীক্ষার তারিখ, মান, পরীক্ষার ধরন, মানবন্টন, সবকিছু উল্লেখ থাকবে এতে। 

নিচে অন্যান্য খবর পড়ুন

অবসান ঘটিয়ে অবশেষে  সীমিত পরিসরে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে মুখ খুলল ইসলাম ধর্মের শীর্ষ দেশ এবং মহানবী (সাঃ) এর জন্মভূমি  সৌদি আরব। 


মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-এর বিতর্কিত ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন এবং ইসলাম ধর্মের সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগের ঘটনায় ফ্রান্সের নিন্দা জানিয়েছে দেশটি। তবে এর বেশি আর কোনো প্রতিবাদ করেছে বলে জানা যায় নি।সূত্রমতে আরো জানা যায় যে, সৌদি আরবের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, বাকস্বাধীনতা এর সংস্কৃতি শ্রদ্ধা, সহনশীলতা এবং শান্তির ভিত্তিতে হওয়া উচিত; যা ঘৃণা, সহিংসতা এবং চরমপন্থার উৎপত্তি ও সহাবস্থানবিরোধী চর্চা প্রত্যাখ্যান করে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ