সর্বশেষ

10/recent/ticker-posts

হোয়াইট হাউসের চারদিক কাঁটাতারে ঘেরা - আতঙ্কে ডোনাল্ড ট্রাম্প

 


স্থানীয় সময় সোমবার রাতে মার্কিন রাজধানী, ওয়াশিংটন ডিসি থেকে শুরু হওয়া বড় শহরগুলিতে পুলিশ টহল শুরু হয়। সুরক্ষার জন্য হোয়াইট হাউজের চারপাশে কাঁটাতারের বেড়া এবং কংক্রিট ব্যারিকেড তৈরি করা হয়েছে।


মার্কিনরা আশঙ্কা করে যে, ফলাফল যাই হোক না কেন, নির্বাচনী সহিংসতা ছড়িয়ে পড়তে পারে।রিপাবলিকান রাষ্ট্রপতির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পও তার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেছেন, ডেমোক্র্যাটিক পার্টির লোকেরা লুটপাটের উৎপেতে আছে।শেষ মুহূর্তের নির্বাচনী প্রচারে জনমত জরিপে এগিয়ে থাকা ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বিডেন বলেছেন যে তিনি দেশকে ঐক্যবদ্দধ করবেন। তিনি আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের জন্য নতুন দিনের আহ্বান জানিয়েছেন।

দেশকে রক্ষার জন্য রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প তার পুনর্নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন।বিক্ষোভকারীরা প্রায় প্রতিটি শহরে প্রস্তুত। বেশ কয়েকটি রাজ্যে ন্যাশনাল গার্ড স্থাপন করা হয়েছে।


এই প্রথম আমেরিকান বেশিরভাগ ভোটার আগাম ভোট দিয়েছেন। প্রায় সাড়ে নয় কোটি ভোটার আগাম ভোট দিয়েছেন। বাকী ভোটাররা নির্বাচনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

শেষ দিনগুলিতেও ট্রাম্প মিডিয়া এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের উপরও আক্রমণ করেছেন। তিনি বলেছেন, ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জিতলে তিনি দেশটি বন্ধ করে দেবেন। কোন স্কুল হবে না। আমেরিকানদের জন্য কোন উত্সব হবে না। আমেরিকা নৈরাজ্যবাদীদের হাতে পড়বে।


জো বিডেন এলোমেলো মন্তব্য না করে পাণ্ডুলিপি থেকে কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, নির্বাচিত হলে তিনি ডেমোক্র্যাট বা রিপাবলিকান নয়, দেশের রাষ্ট্রপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রচারণা শিবির থেকে জানানো তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বিডেন দুই দফায় পেনসিলভেনিয়ায় অবস্থান করবেন।


পরাজয় স্বীকার করার কথা ভাবছি না-ডোনাল্ড ট্রাম্প


মঙ্গলবার মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোট গ্রহন করা হয়েছিল। এই দিন, স্থানীয় সময় রাত থেকেই পরিষ্কার হতে শুরু করবে, কে জিততে চলেছে, কাকে পরাজয় স্বীকার করতে হবে। তবে রিপাবলিকান মনোনীত প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্দেশ দিয়েছেন যে তিনি পরাজয় মেনে নেবেন না।

যুক্তরাষ্ট্রের এবারের এই নির্বাচনটি বিভিন্নভাবে অকল্পনীয়। এই নির্বাচন ইতিমধ্যে ভোটগ্রহণের দিকের সমস্ত পূর্ববর্তী রেকর্ড ভেঙেছে। সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, এবার ১০ কোটিরও বেশি অগ্রিম ভোট পড়েছে। এটি পোস্ট অফিসের মাধ্যমে বা স্বসশরীরে উপস্থিত হয়ে অগ্রিম ভোটের গণনা।


রীতি অনুসারে, উভয় প্রার্থীই তাদের জয়-পরাজয়ের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। তবে ট্রাম্পের পরাজয় মেনে নিতে কোনও প্রস্তুতি নেই। দিনের প্রথম দিকে, ট্রাম্প হোয়াইট হাউস থেকে মঙ্গলবার ভোরে ভার্জিনিয়ার আর্লিংটনে তাঁর প্রচার শিবিরের সদর দফতরে গিয়েছিলেন, সিএনএন জানিয়েছে। উপস্থিত একজন সাংবাদিক তাকে জিজ্ঞাসা করলেন, নির্বাচনে পরাজয় স্বীকার করতে তিনি কোনও বক্তব্য প্রস্তুত করেছেন কিনা। জবাবে ট্রাম্প বলেছিলেন, "না, আমি এখনও নির্বাচনের ফলাফল গ্রহণ বা পরাজয় স্বীকার করার কথা ভাবছি না।" তিনি আরও যোগ করেছেন, "আপনি জানেন, এটি জেতা সহজ। পরাজয় কখনও সহজ কিছু হয় না। আমার পক্ষে সম্ভবই নয় ''

দিনের শুরুতে ট্রাম্প প্রচারের সদর দফতরে এসে বলেছিলেন, "আমি শুনেছি আমরা ফ্লোরিডা এবং অ্যারিজোনায় ভাল করছি। আমি টেক্সাসেও দুর্দান্ত করছি। আমি শুনেছি আমরা সর্বত্রই ভালো করছি। আমার মনে হয় আজকের রাত মহান হতে চলছে।

বাকি অংশ>>

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ