সর্বশেষ

10/recent/ticker-posts

নেতারাও জুতা ও ঝাড়ু নিয়ে জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে মিছিল করেছিলেন




বৃহস্পতিবার রাতে উত্তরায় ঢাকা-১৮ এর উপনির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে একটি মশাল মিছিল করা হয়েছে। স্থানীয় বিএনপির একাংশের নেতাকর্মীরা ওই আসনে জাহাঙ্গীরকে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘোষণা করে মিছিলটি করেন।


আজ বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে মশাল মিছিলটি উত্তরা আজমপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে শুরু হয়ে হাউজ বিল্ডিং বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গিয়ে শেষ হয়। বিক্ষোভকারীরা জাহাঙ্গীরকে অবাঞ্ছিত ও 'সন্ত্রাসী' আখ্যা দিয়ে তার বিচারের দাবিতে স্লোগান দেয়। শোভাযাত্রায় কয়েক শতাধিক মশাল নিয়ে সাধারণ মানুষ ও পথচারীরা হঠাৎ ভয়ে আশপাশে ছুটে যেতে শুরু করে।


নাজিম উদ্দিন দেওয়ান, মতিউর রহমান, আমজাদ হোসেন ও আবদুল কাদেরের নেতৃত্বে তিন শতাধিক নেতাকর্মী মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন। এর আগে এই বিভাগের নেতারাও জুতা ও ঝাড়ু নিয়ে জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে মিছিল করেছিলেন।

শোভাযাত্রায় উপস্থিত দক্ষিণ খান থানার বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন বলেছিলেন, "জাহাঙ্গীর ও তার সমর্থকরা ১২ সেপ্টেম্বর অনেক নেতাকর্মীকে মারধর করেছিলেন। কোনও বিচার হয়নি। তারপরেও তাকে (জাহাঙ্গীর) মনোনীত করা হয়েছে। এই আসনের জন্য।তাই আমরা ঢাকা-১৮ আসনে এই প্রার্থীকে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘোষণা করছি। '


এ ছাড়া ঢাকা-১৮ আসনের মনোনয়ন নিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের বাড়িতে ডিম নিক্ষেপের জন্য ১৮ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি। 


এই মশাল মিছিল সম্পর্কে তিনি কিছু জানেন না বলে উল্লেখ করে বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর বলেছিলেন, "অনেকেই মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তবে এখন আমরা সবাই নির্বাচনে দলের হয়ে একসাথে কাজ করে যাচ্ছি। সম্ভবত আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্র করছে। কারণ, তারা চান না জনগণ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে যেতে।' তিনি আরও বলেছিলেন, এগুলি আওয়ামী লীগের অন্য কোনও দলও করতে পারে।

ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ সাহারা খাতুনের মৃত্যুর পরে খালি হওয়া এই আসনটি আগামী ১২ নভেম্বর নির্বাচনে হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ